সুনামগঞ্জ

সুনামগঞ্জে ব’ন্যায় বাড়ছে দুর্ভোগ, আশ্রয়ের খোঁজে মানুষ

নিউজ ডেস্কঃ সুনামগঞ্জের সুরমা নদীর পানি কিছুটা কমলেও ব’ন্যা পরিস্থিতি অ’পরিবর্তিত রয়েছে। টানা সময় ধরে পানিবন্দী অবস্থায় নিরুপায় হয়ে ঘরবাড়ি ছেড়ে আশ্রয়ের খোঁজে অনত্র যাচ্ছেন ব’ন্যা কবলিত মানুষজন।

আসবাপত্র, হাঁস-মুরগী, গৃহপালিত পশু সরিযে নিচ্ছেন উঁচু স্থানে। কেউ কেউ এসব ফেলেই পরিবার পরিবার নিয়েই আশ্রয় নিয়েছেন স্থানীয় স্কুল কিংবা ফ্লাড সেন্টারে। আবার কেউ সুযোগে সুবিধা না থাকায় ঘরের উপরেই মাছাই তৈরি করে মানবেতর জীবনযাপন করছেন।

বিশুদ্ধ পানি, খাবার ও স্যানিটেশন সুবিধা না থাকায় ব’ন্যা কবলিত এলাকা ও আশ্রয়কেন্দ্রে আশ্রয় নেয়া মানুষগুলো চরম ক’ষ্টের মধ্যে দিনাতিপাত করছেন। পরিবারের শি’শু ও বয়স্ক সদস্যরা পড়েছেন স্বাস্থ্য ঝুঁ’কিতে। এসব এলাকায় ডায়রিয়াসহ পানিবাহিত রোগের প্রকোপ বড়েছে।শহরের পূর্ব সুলতানপুর এলাকা থেকে সুনামগঞ্জ সরকারি কলেজের আশ্রয় নিয়েছেন অর্ধশতাধিক পরিবার। ব’ন্যার পানিতে ঘরবাড়ি ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হওয়ায় ব’ন্যার পরে পুনবার্সন নিয়ে দুঃচিন্তায় এসব পরিবারের লোকদের।

আশ্রয়কেন্দ্রে থাকা মনোয়ারা বেগম বলেন, ‘আমা’র পরিবারের ৬ জন সদস্য নিয়ে গেল ৬ দিন ধরে কলেজে উঠেছি। ঘরবাড়িতে কোম’র পানি। পানি আমা’র সব শেষ করে দিছে।’

আবুল কালাম নামের আরেকজন বলেন, ‘তিনদিন ধরে আছি, কাজকা’ম নেই। চালপাত বা হাতে টাকাও নেই। ৫ সন্তান নিয়ে খেয়ে না খেয়ে সময় পার করছি।’

নাছিমা আক্তার বলেন, ‘চারদিন পর আজ ডিসি আর মেয়র সাহেব কিছু চাল দিয়েগেছেন। অস্থায়ী চুলায় খিচুড়ি করে ছে’লে-সন্তানদের দিচ্ছি। আমা’র শাশুড়ি আর এক বাচ্চা ডায়েরিয়া ভুগতেছে।’

এদিকে, উজানের পানি ধীরে ধীরে ভাটি এলাকা থেকে চাপ সৃষ্টি করায় নতুন করে প্লাবিত হচ্ছে জে’লার জগন্নাথপুর, শান্তিগঞ্জ, দিরাই,শাল্লা উপজে’লার নতুন নতুন এলাকায়। রাস্তা-ঘাট, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ম’সজিদ, মন্দির, কবরস্থানসহ বিভিন্ন স্থাপনা ডুবে যাওয়ায় পানিব’ন্দি হয়েছে পড়েছেন এসব এলাকার নিম্নাঞ্চলের হাজারো মানুষ।

ভা’রত-মেঘালয়ে বৃষ্টিপাত কম হওয়ায় পানি কমতে শুরু করেছে। ফলে ধীরে ধীরে ব’ন্যা পরিস্থিতি স্বাভাবিক উন্নতি হচ্ছে বলে দাবি সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী জহিরুল ইস’লাম।

জে’লা প্রশাসক জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ব’ন্যার্ত এলাকায় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে জিয়ার চাল, নগদ টাকা ও শুকনো খাবার পৌঁছে দেয়া হচ্ছে। যারা আশ্রয় কেন্দ্রে আশ্রয় নিয়ে আম’রা তাদের খোঁজ-খবর নিচ্ছি। সেখানও ত্রাণ সামগ্রী প্রদান করা হচ্ছে।

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!