সুনামগঞ্জ

সুনামগঞ্জে বিপৎসীমা’র নিচে সুরমা’র পানি

টাইমস ডেস্কঃ পাহাড়ি ঢল ও ভা’রি বৃষ্টিতে টানা ৬ দিন সুনামগঞ্জের সুরমা নদীর পানি বিপৎসীমা’র ওপর দিয়ে প্রবাহিত হলেও এখন সেটি নিচে নেমেছে।

গতকাল শনিবার সকাল থেকে পানি কমতে শুরু করায় রাত থেকে জে’লায় সুরমা’র পানি বিপৎসীমা’র নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। রোববার (২২ মে) এ অবস্থাকে ব’ন্যা পরিস্থিতির উন্নতি বলে জানিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো)।

পাউবো নির্বাহী প্রকৌশলী মো. শামসুদ্দোহা জানান, আবহাওয়া ভালো হওয়ায় নদীর পানি কমেছে। বর্তমানে জে’লায় সুরমা’র পানি বিপৎসীমা’র ১০ সেন্টিমিটার নিচ দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।

তাই বলা যায়, ব’ন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হচ্ছে তবে ছাতকে এখনও সুরমা’র পানি বিপৎসীমা’র ৯৭ সেন্টিমিটার ওপর দিয়েই প্রবাহিত হচ্ছে।

নদীর পানি কমে গেলেও শহরের বিভিন্ন এলাকার পানি স্থির থেকে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। এতে পানিব’ন্দি অবস্থায় দিন কাটছে পৌর এলাকার বাসিন্দাদের।

নবীনগর এলাকার রত্না বেগম বলেন, ‘এ বছর পানি দ্রুত এসে আমাদের গৃহস্থির সবকিছু ভিজে গেছে। মাঠের ধান গো’লায় তোলার পরও তা ভিজে গেছে। এখন ঘরের মধ্যেই কোনো রকম দিন কাটছে আমাদের।’

এদিকে সুনামগঞ্জ পৌর শহরে বাসাবাড়ির পানি কিছুটা কমতে শুরু করেছে, তবে ড্রেনেজ সমস্যার কারণে পানি দ্রুত নামছে না বলে দাবি করেছেন বাসিন্দারা।

ম’রাটিলা এলাকার সুবল দাস বলেন, ‘পানি কমছে খুব ধীরগতিতে। জমে থাকা পানি থেকে এলাকায় দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে, যা খুবই ক’ষ্ট’কর।’

শহরের নতুনপাড়া এলাকার বাসিন্দা অঞ্জন রায় বলেন, ‘হাওরের পানি শহরে চলে এলেও স্থির হয়ে থেকে যায়। এটার মূল কারণ সুনামগঞ্জের পৌর শহরের সব ড্রেন ময়লায় কানায় কানায় পরিপূর্ণ। আর এখন এই ময়লা পানির সঙ্গেই ২ দিন ধরে আছি।’

সুনামগঞ্জ পৌরসভা’র মেয়র নাদের বখত বলেন, ‘ঢল আর বৃষ্টিতে পৌর শহরের অনেক আবাসিক এলাকায় পানি উঠেছে। আম’রা লোকজনের বাড়ি বাড়ি গিয়ে খাবার পৌঁছে দিচ্ছি। খাওয়ার পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেটও দেয়া হচ্ছে সঙ্গে।’

Back to top button
error: Alert: Content is protected !!